Search

নকটার্ন

শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক ওয়েবম্যাগ

Category

সাক্ষাৎকার

কার্লোস ফুয়েন্তেস’র সাক্ষাৎকার :: ভাষান্তর : অজিত দাশ

Legado_de_Carlos_Fuentes_9
‘গণতন্ত্র এমন সস্তা কিছু নয় যে চাইলেই আমদানী করা যায় ’

[ কার্লোস ফুয়েন্তেস (১৯২৮-২০১২) স্পেনীয় ভাষা সাহিত্যের জগতে কালজয়ী কথা সাহিত্যিক। ১৯৮০ দশকের আগে পর্যন্ত ফুয়েন্তেস-এর খ্যাতি ও প্রচার ছিল স্পেনীয় ভাষাভাষী দেশগুলিতেই সীমাবদ্ধনিয়ইয়র্ক শহরের সুখ্যাত “প্যারিস রিভিউ” সাহিত্যপত্রিকা তাঁর একটি গভীর, মননশীল ও সুদীর্ঘ সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছিলেন। বলতে গেলে, ইংরেজিভাষী সুধী পাঠকদের কাছে তাঁর প্রথম ও বিস্তৃত আত্মপ্রকাশ। ধ্রুপদী সাহিত্যিকরাই তাঁর প্রিয় এবং পথপ্রদর্শক; ফরাসি কথাসাহিত্যিক মার্সেল প্রুস্ত তাঁর জীবনের ধ্রুবতারা। তার প্রথম উপন্যাস  লা রেহিওন মাস ত্রান্‌সপারেন্তে” অর্থাৎ “যে অঞ্চলে আকাশ পরিষ্কার” প্রকাশিত হয় ১৯৫৮ সালেফুয়েন্তেসর বয়স তখনও তিরিশ ছোঁয়নি। প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই সফলতা লাভ করে। তাঁর দ্বিতীয় উপন্যাস “লাস বুয়েনাস কনসিয়েনসিয়াস” (“উত্তম বিবেক”) আকারে ছোট ১৫০ পৃষ্ঠা এবং অনেকের মতে প্রথাসিদ্ধ মার্কসবাদী এই উপন্যাসে লেখকের রচনাশৈলির বৈচিত্রের প্রকাশ ঘটে। লেখকের কালজয়ী, রূপকাত্মক উপন্যাস “লা মুয়ের্তে দে আর্তেমিও ক্রুস” (“আর্তেমিও ক্রুসের মৃত্যু”) প্রকাশিত হয় ১৯৬২ সালে। আধুনিক লাতিন আমেরিকার সাহিত্যের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় গ্রন্থ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে উপন্যাসটি অনেক জনপ্রিয় হয়েছে। উপন্যাসটির আংশিক অনুপ্রেরণা অরসন ওয়েলস পরিচালিত সুখ্যাত চলচ্চিত্র “নাগরিক কেইন” (“সিটিজেন কেইন“)চলচ্চিত্রের অনেক কলাকৌশলের ব্যবহার রয়েছে উপন্যাসটিতে। ফুয়েন্তেসের উপন্যাস দ্যা ওল্ড গ্রিংগো ইংরেজী ভাষায় অনুদিত হলে মার্কিন বেস্ট সেলারের তালিকায় স্থান পায়।  জীবনের শেষদিন পর্যন্ত তিনি ছিলেন সক্রিয়, মুখর। ১৫ই মে তাঁর মৃত্যুর দিনেই রিফর্মাসংবাদপত্রে প্রকাশিত হয় ফ্রান্সের নতুন সরকার ও তাঁর সমাজতন্ত্রী নেতার বিষয়ে লেখকের প্রবন্ধ।  ফুয়েন্তেসের নাম গত এক দশক ধরে নোবেল বিষয়ে জল্পনা-কল্পনার শীর্ষে থাকলেও  শেষ পর্যন্ত নোবেল পুরস্কার পাননি তিনি।]   Continue reading “কার্লোস ফুয়েন্তেস’র সাক্ষাৎকার :: ভাষান্তর : অজিত দাশ”

Advertisements

পুণ্য-তীর্থে আলোক-স্নান :: কৌশিক বাজারী

11787424_724074874389021_26744413_n
আলোক সরকার

[কথা হচ্ছিল বাংলাদেশের দুই তরুণ-তুর্কির সাথে। ‘নকটার্ন’ নামে একটি কবিতাকেন্দ্রিক পত্রিকার (আন্তর্জাল) সম্পাদনা করে চলেছেন বেশ কিছুদিন। তো একদিন কথা হচ্ছিল দুপার বাংলার কবি ও লেখকদের বইপত্র আসা-যাওয়া নিয়ে। সত্যি কথা হল, এপারের অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গের কবি লেখকরা যতটা ওপারে গিয়ে পৌঁছেছেন তার ভগ্নাংশও  ওপার থেকে  এপারে এসে পৌঁছয় না কোনো এক অজ্ঞাত রহস্যময় কারণে। সুনীল-শক্তি থেকে ভাস্কর, উৎপল কুমার, জয়, রণজিৎ থেকে জহর সেন মজুমদার পর্যন্ত ওপারে বহুল-পঠিত বলেই মনে হয়। অন্তত সামাজিক মাধ্যমগুলিতে বিভিন্ন আলোচনা সূত্রে এঁদের রচনাংশ প্রায়শই উদ্ধৃত হতে দেখা যায় বাংলাদেশের বন্ধুদের কলমে। তো খুব ভালো হয়, যদি আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে একতরফা পদ্ধতিটির মূলে যে রহস্যময়তা, তাঁকে পাত্তা না দিয়ে, যদি আমরা সামাজিক মাধ্যমগুলিতেই এই আলোচনাগুলি চালাতে থাকি। অর্থাৎ বাংলাদেশের অন্তর্জাল পত্রিকাগুলি যেমন এপারকে জানতে ও জানাতে  আগ্রহী, তেমনি এদিকের অন্তর্জাল মাধ্যমগুলিও সেই অভাব পূরণ করুক। ছাপানো পত্রিকা বা বই এর ক্ষেত্রে যে অসুবিধা, এখানে সেই বাধা হয়তো ডিঙানো যাবে কিছুটা। যদিও অন্তর্জালের সুযোগ এখনো বেশীর ভাগ মানুষের হাতে নেই আমরা জানি। Continue reading “পুণ্য-তীর্থে আলোক-স্নান :: কৌশিক বাজারী”

আল মাহমুদ- এর সাক্ষাৎকার :: শিমুল সালাহ্‌উদ্দিন

neepadasgupta_1279887847_1-image_233_74787কবির কাজ স্বপ্ন দেখানো, আমি এই জাতিকে স্বপ্ন দেখিয়েছি।”  আল মাহমুদ

[আল মাহমুদ (জন্ম, ১১জুলাই, ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দ) আমার প্রিয় কবি, আমাদের ভাষার অন্যতম প্রধান কবি। তিনি একধারে একজন কবি, ঔপন্যাসিক এবং গুরুত্বপূর্ণ ছোটগল্পকার। তিরিশ এর কবিদের হাতে বাংলা কবিতায় যে কথিত আধুনিকতার ঊন্মেষ, তার সফলতারপতাকা আল মাহমুদ পঞ্চাশের দশক থেকে এখনো পর্যন্তগর্ব ও কৃতিত্বের সঙ্গে বহন ক’রে চলছেন।

রবীন্দ্র-বিরোধী তিরিশের কবিরা বাংলা কবিতার মাস্তুল পশ্চিমের দিকে ঘুরিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন, আল মাহমুদ আধুনিক বাংলা কবিতাকে বাংলার ঐতিহ্যে প্রোথিত করেছেন মৌলিক কাব্যভাষার সহযোগে— তাঁর সহযাত্রী শামসুর রাহমান, শক্তি চট্টোপাধ্যায়, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় প্রমুখের তুলনায় এইখানে তিনি ব্যতিক্রমী ও প্রাগ্রসর। Continue reading “আল মাহমুদ- এর সাক্ষাৎকার :: শিমুল সালাহ্‌উদ্দিন”

মারিও ভার্গাস ইয়োসা’র সাক্ষাৎকার :: অমিত চক্রবর্তী

1304977230568.cached[মারিও ভার্গাস ইয়োসা ১৯৩৬ সালে পেরুতে জন্মগ্রহণ করেন। তাকে লাতিন আমেরিকার ও তার প্রজন্মের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথাসাহিত্যিকদের একজন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তার উল্লেখযোগ্য উপন্যাসগুলো হচ্ছে ‘দ্য টাইম অফ দ্য হিরো’, ‘কনভার্সেশান ইন দ্য ক্যাথেড্রাল’, ‘দ্য গ্রিন হাউজ’ ইত্যাদি। ১৯৯০ এর হেমন্তে প্যারিস রিভিউ’কে দেয়া এই সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে তার কর্মপদ্ধতি, লাতিন আমেরিকান সমসাময়িক সাহিত্যিকদের সাথে সম্পর্ক, রাজনৈতিক ও সামাজিক বিবেচনাসমূহ আর উপন্যাসের পেছনের কাহিনী। মূল সাক্ষাতকারটি নিয়েছেন সুজানা হানেয়েল ও রিকার্ডো অগাস্তো সেত্তি।] Continue reading “মারিও ভার্গাস ইয়োসা’র সাক্ষাৎকার :: অমিত চক্রবর্তী”

Blog at WordPress.com.

Up ↑

%d bloggers like this: